সোশালাইজেসন ফিরিয়ে আনতে বসন্ত উৎসব !

সিনেবাংলা ডেস্ক,সোহম সেনাপতি: “বসন্ত এসে গেছে” তার সবচেয়ে বড় প্রমাণ চারিদিকে রঙের বন্যা । বসন্তকাল মানেই বসন্ত উৎসব সর্বোপরি রঙিন হয়ে ওঠার উৎসব । এই রঙের উৎসবে মেতে উঠেছে ছোট থেকে বড় সকল বয়সের মানুষ। বিদ্যালয় থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রায় সকল জায়গাতেই পালিত হচ্ছে এই রঙের উৎসব। 18 ই মার্চ দোল। ঠিক তার আগের দিন 17 ই মার্চ হাওড়ার, শিবপুর শ্রীমৎ স্বামী প্রজ্ঞানানন্দ সরস্বতী বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হলো বসন্ত উৎসব ।
রঙের উৎসবে মেতে উঠেছিল , এই বিদ্যালয়ের ছাত্র, শিক্ষক, শিক্ষাকর্মী, প্রাক্তন ছাত্র প্রত্যেকেই । অনুষ্ঠানে প্রথমভাগে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান যেখানে ছাত্র-শিক্ষকসহ অনেকেই যোগদান করেন। ছাত্র এবং শিক্ষকদের মিলিত গান, ছাত্র এবং শিক্ষিকা দের নৃত্য অনুষ্ঠান  ও প্রধান শিক্ষক রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এর কিছু বক্তব্য এর মধ্যে দিয়েই এই প্রথম ভাগের অনুষ্ঠান শেষ হয়। এই প্রথম ভাগের অনুষ্ঠানের পরে দ্বিতীয় ভাগের অনুষ্ঠানে, ছাত্র শিক্ষক শিক্ষিকা শিক্ষাকর্মী প্রাক্তন ছাত্র প্রত্যেকে মিলিত হয়ে রং খেলা আনন্দে মেতে ওঠেন । রঙের উৎসবের আনন্দে প্রত্যেকে হয়ে ওঠে রঙিন।
স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাজীব বাবু জানান, বসন্ত উৎসব এই স্কুলে এই বছরই প্রথম অনুষ্ঠিত হয়। এর কারণ জানতে চাওয়ায় তিনি বলেন ,’covid এর কারণে বহু দিন স্কুল বন্ধ ছিল তার মধ্যে ছাত্র শিক্ষকদের মধ্যে পারস্পারিক যে মেলামেশা সেটি প্রায় বন্ধ ছিল । বহুদিন পর স্কুল খোলাতে ভাবছিলাম যে কিভাবে সেই সোশালিজেশন টাকে ফিরিয়ে আনা যায়, এবং আমাদের স্কুলের প্রতি বছরই বড় করে একটি বার্ষিক অনুষ্ঠান হয় কিন্তু এ বছর যখন স্কুল খুললো তখন সেই বার্ষিক অনুষ্ঠানে সময়টিও বেরিয়ে গেছিল, তাই তখনই এই বসন্ত উৎসব করার চিন্তা মাথায় আসে । স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির পারমিশন এ, এবং আমার সহ শিক্ষক শিক্ষিকাদের সহযোগিতা আজকে এই অনুষ্ঠানটি করতে সাহায্য করেছে। তিনি আরো বলেন যদি স্কুল আরো আগে আগে খুলত তাহলে এই অনুষ্ঠানে আরো বেশি পরিমাণ ছাত্র-ছাত্রীর উপস্থিতি  লক্ষ্য করা যেত। এবং আগামী বছরগুলোতে ও এই অনুষ্ঠান স্কুলে পরিচালনা করার ইচ্ছে রয়েছে তার।
এমন এক উদ্যোগের জন্য Cinebangla.in শিবপুর শ্রীমৎ স্বামী প্রজ্ঞাননান্দ সরস্বতী বিদ্যালয় কে অনেক সাধুবাদ জানায় ।

1 thought on “সোশালাইজেসন ফিরিয়ে আনতে বসন্ত উৎসব !”

  1. সকলকে বসন্তোৎসবের শুভেচ্ছা জানাই – রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রধান শিক্ষক, শিবপুর শ্রীমৎ স্বামী প্রজ্ঞানানন্দ সরস্বতী বিদ্যালয়।

    Reply

Leave a Comment