Debchandrima: আসতে চলেছে পূজো, নবমীর লুকে ধরা দিলেন দেবচন্দ্রিমা

আর মাত্র ৪৭ দিনের (47 days) অপেক্ষা‌। তারপরই মা আসছেন। দূর্গাপূজো (Durga pujo) বাঙালিদের শ্রেষ্ট উৎসব। এই উৎসব শুরু বহুদিন আগে থেকেই শুরু হয়ে যায় দিন গোনা (countdown)। চলতে থাকে‌ শপিং (shopping), মন্ডপ সজ্জা, ঠাকুর তৈরী থেকে শুরু করে নানা রকম পূজো প্রস্তুতি। আপামর জনগণ মেতে ওঠে এই আনন্দের মহোৎসবে‌ (festival)। এই আনন্দোৎসবে সামিল হন সাধারান মানুষ থেকে শুরু করে রঙিন পর্দার সামনে থাকা সকলেই।

টলিপাড়ার (Tollywood) এমনই এক জনপ্রিয় মুখ হলেন দেব চন্দ্রিমা সিংহ রায় (Debchandrima Singha Roy)। সরকার জলসায় ‘সাঁঝের বাতি’ (Sanjher Bati) ধারাবাহিকে (serial) অভিনয় করার সময় থেকেই বিপুল জনপ্রিয়তা (popularity) পেয়েছেন তিনি। অভিনয়ের পাশাপাশি ভ্লগিং (vlogging), মডেলিং (modeling) সমস্তটাই ভীষণ দক্ষতা এবং নিপুণতার সাথে করেন তিনি। সম্প্রতি তার একটি ইন্টারভিউ (interview) প্রকাশ্যে এসেছে, এখানে দেখা যাচ্ছে ফ্যাশন ডিজাইনার (fashion designer) রুদ্রর (Rudra) সাথে একটি‌ শ্যুট (shoot) করছেন তিনি। সেখানে দেবচন্দ্রিমার (Debchandrima) পরনে রয়েছে একটি গাঢ় সবুজ (deep green) রঙের ডিপ নেক গাউন ।

ইন্টারভিউতে দেবচন্দ্রিমা (Debchandrima) জানান, তিনি পূজোতে (Pujo) বাইরে ঘুরতে যেতেই পছন্দ করেন। ঘুরতে গেলে প্রতিটা সাইট (sight) , প্রতিটা ব্যাকগ্রাউন্ডের (background) সাথে মিলিয়ে ড্রেস (dress), জুতো (shoes), টুপি (cap/ hat) এসব পড়েন তিনি। ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান থাকলে কোথায় যাবেন, কোথায় থাকবেন সমস্তটাই ইন্টারনেট (internet) ঘেঁটে নিজেই ঠিক করেন দেবচন্দ্রিমা। এখন‌ পর্যন্ত কলকাতার (Kolkata) পূজো মাত্র দু’বার দেখেছেন। তার বাড়ি সিঙ্গুরে (Singur) হওয়ার কারণে ছোটোবেলায় কখনও কলকাতার পূজো দেখা হয়নি তার। তবে তার বাড়িতে কালী মায়ের পূজো হতো, কিন্তুই বাড়িতে প্রচুর রেস্ট্রিকশন (restrictions) থাকায় সেই পূজোতেও কখনও মনের মতো করে আনন্দ করতে পারেননি বলে আক্ষেপ রয়ে গেছে তার।

Leave a Comment