Sweta Bhattacharya: তবে কি এবারের পুজোতেও ঢাক বাজাবেন যমুনা ঢাকি!জেনে নিন তার মুখ থেকেই :

চিত্র: শ্বেতা ভট্টাচার্য

সিনেবাংলা ওয়েব ডেস্কঃ শ্বেতা ভট্টাচার্য (sweta bhattacharya)বাংলা টেলিপাড়ার চেনা মুখ। আজ আমরা কিছুটা সময় কাটালাম তার সাথে। তার পচ্ছন্দ-অপচ্ছন্দ , বন্ধু , পুজো প্ল‍্যান ও কেরিয়ার(carrier) সব কথা তিনি ভাগ করে নিলেন আমাদের সঙ্গে।

চিত্র: শ্বেতা ভট্টাচার্য

শ্বেতার ফটোশুট চলছিল। ভয়ানক ব‍্যস্ততার মাঝখানে কিছুটা সময় তিনি আমাদের দিলেন। বললেন এখন চলছে ব্রাইডাল লুকে (bridal look) ফটোশুট(photoshoot)। তাকে খুব সুন্দর দেখাচ্ছিল নববিবাহিতা রূপে। এই সুন্দর রূপ দেওয়ার জন‍্য তিনি রুদ্র(Rudra) ও মেকআপ আর্টিস্ট(makeup artist) অন্বেষা(anwesha)-কে। অন্বেষা নবাগতা তাই শ্বেতা তার পরিচয় করিয়ে দেন। রুদ্র কে নতুন বন্ধু হিসাবে পেয়ে তিনি আপ্লুত। রুদ্র শ্বেতার সঙ্গে কাজ করে খুব খুশি। ইতিপূর্বে তিনি আরও সকলকে এই রূপে সাজালেও শ্বেতা যেমন বাধ‍্য মেয়ের মতো তার সঙ্গে সহযোগিতা করেছেন তার জন‍্য তিনি খুব খুশি। অল্প কয়েক ঘন্টার বন্ধুত্ব হলেও রুদ্র শ্বেতা-কে কতটা জানেন তা আমরা একটু জানার চেষ্টা করি। র‍্যাপিড ফায়ার (rapid fire) রাউন্ডে প্রথম প্রশ্ন ছিল, শ্বেতার পচ্ছন্দ কি? শাড়ি না জিনস্? রুদ্র বিনা সংশয়ে বলে দেন, শাড়ি। শ্বেতা জানান উত্তর সঠিক। শ্বেতার প্রিয় গয়না?কানের দুল। আবারও সঠিক রুদ্র। শ্বেতা কি পচ্ছন্দ করেন ?লিপগ্লস। কারেক্ট এগেন। এভাবেই মজা করে আড্ডা চলতে থাকে।

চিত্র: শ্বেতা ভট্টাচার্য

শ্বেতা জানান এবছর পুজোর অষ্টমী -তে পড়বেন বলে সাদা শাড়ি কিনেছেন। তার মা তাকে এই লুকে দেখে কি বললেন, জিজ্ঞেস করাতে শ্বেতা জানান মা কোনোদিন বিয়ের বিষয়ে একটা কথাও বলেনি। ওটা সম্পূর্ণ আমার ওপর ছেড়ে দিয়েছেন। কাজের জায়গায় তিনি বন্ধুত্ব করেন না বলে অনেকে তাকে ফ্রেন্ডলি বাট ইনট্রোভার্ট (friendly but introverted) ভাবেন যা শ্বেতা আংশিক সত‍্য বলে মনে করেন। আসলে তিনি বিশ্বাস করেন ভাইব মিশলে তবেই তো মেলামেশা করা যায়। পুরুষ ভক্তদের হতাশ না হয়ে তার এই নতুন লুক আরও শেয়ার করতে বলেছেন। কারণ এ কেবলমাত্র ফটোশুট হচ্ছিল, আসলে তিনি এখনও অবিবাহিত। এভাবেই শেষ হয় আমাদের আড্ডা।

Leave a Comment